আন্তর্জাতিক

ফিলিপাইনে বন্যা ও ভূমিধসে নিহতের সংখ্যা ১৮০ ছাড়িয়েছে….

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চলে গ্রীষ্মমণ্ডলীয় তীব্র ঝড়ের পর ভূমিধস ও আকস্মিক বন্যায় নিহতের সংখ্যা ১৮০ ছাড়িয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। এ ঘটনায় নিখোঁজ রয়েছে আরও বহু মানুষ। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন কর্তৃপক্ষ।

রোববার দেশটির কর্মকর্তা ও সাহায্য সংস্থাগুলোর বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, দ্বীপরাষ্ট্রটির দ্বিতীয় বৃহত্তম দ্বীপ মিন্দানাওয়ের তুবোদ শহরের কাছে শুক্রবার গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ঝড় তেম্বিনের আঘাতে সৃষ্ট আকস্মিক বন্যা ও ভূমিধসে একটি গ্রাম লণ্ডভণ্ড হয়ে যায়।

ফিলিপাইনের আঞ্চলিক পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ঝড়ের পর ভূমিধস ও বন্যায় এখন পর্যন্ত অন্তত ১৮২ জনের মৃত্যুর বিষয়ে তারা নিশ্চিত হয়েছে। এছাড়া এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগে এখন পর্যন্ত অন্তত ১৫৩ জন নিখোঁজ রয়েছে বলেও জানিয়েছে দেশটির পুলিশ বিভাগ।

তারা বলছে, ভূমিধসে মাটি চাপা পড়ে এবং বন্যার পানির তোড়ে ভেসে গিয়ে হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া এ প্রাকৃতিক দুর্যোগে ৪০ হাজারের বেশি মানুষ তাদের ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে গেছে।

কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে স্থানীয় একটি ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, লানাও দেল নোর্তে প্রদেশে ১২৭ জন, জামবোয়াঙ্গা উপত্যাকায় প্রায় ৫০ জন ও লানাও দেল সুরে ১৮ জন নিহত হয়েছে। সিবিুকো ও সালুগো শহরেও নিহতের খবর পাওয়া গেছে। অনেকেই নিখোঁজ থাকায় নিহতের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ঝড়ের পর জীবিতদের খুঁজে বের করা, আবর্জনা পরিষ্কার করা ও যোগাযোগ ব্যবস্থা পুনঃপ্রতিষ্ঠার জন্য জরুরি বিভাগের কর্মী, সৈন্য, পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়োগ করা হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় বিদ্যুৎ-সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। প্রায় সব ধরনের যোগাযোগব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। এ কারণে উদ্ধারকাজ ব্যাহত হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ফিলিপাইনে প্রতি বছর গড়ে ২০টি শক্তিশালী ঝড় আঘাত হানলেও মিন্দানাওয়ে এ ধরনের ঝড় আঘাত হানার ঘটনা বিরল। সুত্র- এএফপি, বিবিসি

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Read In English»
Close