জেলা সংবাদ

আবারও দিনাজপুরে মাদকের বিষাক্ত ছোবল….

আসমাউল মুত্তাকিন(দিনাজপুর প্রতিনিধি) :
মাদকের জোয়ারে ভাসছে দিনাজপুর। পুরাতন মাদক ব্যবসায়ীদের রেট বাড়িয়ে আবার গ্রীন সিগনাল দেওয়া হয়েছে মাদক বিক্রির। দিনাজপুরে পুলিশ সুপারের মাদকের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষনা মাঝ পথে থামিয়ে দিয়েছে দিনাজপুরের কতিপয় সুযোগ্য অফিসার ইনচার্জ। সরকারী দলের শীর্ষ নেতা বলে খ্যাত কতিপয় অফিসার। প্রতিদিন দক্ষিনের সীমান্ত খানপুর, মহনপুর, কমলপুর, আটোরসহ বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে প্রতিদিন দিনাজপুর শহরে প্রবেশ করছে হাজার হাজার বোতল নিষিদ্ধ ভারতীয় ফেন্সিডিল এর সাথে আসছে ভারতের তৈরী ইয়াবা ট্যাবলেট। এই মাদক বিক্রেতার নেতৃত্ব দিচ্ছেন মাদকের নারী নেত্রী দিনাজপুর শহরের ৬নং উপশহর স্টাফ কোয়াটারের সুফিয়া। মাদকের ব্যবসা করে আজ সে কোটিপতির খাতায় নাম লিখেছে। হাদিয়া দেওয়ার গ্যারান্টি দিয়ে সুফিয়া যাদের নামের তালিকা কোতয়ালী থানায় পাঠাচ্ছে সেই তালিকা অনুসারে থানা অফিসার মাদক বিক্রি করার ভিসা প্রদান করছে। প্রতিদিন দিনাজপুর শহরে কয়েকলক্ষ টাকার নিষিদ্ধ ভারতীয় ফেন্সিডিল ও ইয়াবা আসছে। রাতে থানা সংলগ্ন একটি প্রতিষ্ঠিত কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠানের কারগোতে প্যাকেট হয়ে এসকল মাদক রাজধানী ঢাকায় যাচ্ছে। মাল বুকিং হওয়ার সাথে সাথে বুঝিয়ে দেওয়া হচ্ছে হাদিয়া। ইতিপুর্বে দিনাজপুর ডিবিতে ৬ বছর ওসির দায়িত্ব পালন করার পর শক্ত খুটির জোরে বর্তমান মাত্র ১ কিঃ মিঃ দুরুত্বে অফিসার ইনচার্জ হিসেবে ২০১৬ সালে যোগদান করে। তার এই যোগদান পুলিশের ২শ বছরের অতিত রেকর্ড ভেঙ্গে দিয়েছে। প্রতিটি পাড়া মহল্লায় আবার সরগরম হয়ে উঠেছে মাদকের পদচারনায়। এদিকে পুলিশ সুপারকে সম্পুন্ন অন্ধকারে রেখে মাদক বিক্রির এই গ্রীন সিগনাল অভিভাবক ও সচেতন মহলকে নতুন করে দুশ্চিনতায় ফেলেছে। কোতয়ালী থানার মতাধর ওসির কাছে সৎ পুলিশ সুপার মোঃ হামিদুল আলম অসহায়। অভিজ্ঞ মহল অভিমত ব্যাক্ত করেছেন মাদক নেত্রী সুফিয়ার আঁচলের নিচে ওই সব অফিসার।

এদিকে সীমান্ত পেরিয়ে লাখ লাখ পিস ইয়াবা দিানজপুরে প্রবেশ করলেও বিজিবির ভূমিকা নিয়ে উঠেছে নানা প্রশ্ন। এত পাহারা থাকা সত্ত্বে কিভাবে ইয়াবা ও ফেন্সিডিল দেশে প্রবেশ করছে প্রশ্ন সাধারাণ মানুষের? অনেকের অভিযোগ মাদক ব্যবসায়ীরা সীমান্তে দায়িত্বরত বিজিবির সাথে চুক্তি করে এসব মাদক নিরাপদে দেশে নিয়ে আসছে। সচেতন মহলের প্রশ্ন তাহলে কি আমাদের দেশ মাদকমুক্ত হবে না?। রক্ষা পাবে না যুব সমাজ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Read In English»
Close