বিনোদন

তালাক নোটিশ মাথায় নিয়ে বাপ্পির প্রশংসায় এবার যা বললেন অপু বিশ্বাস….

অভিনয়ে ফিরছেন। এ নিয়ে তো স্বামী শাকিবের অলিখিত বিধি-নিষেধ ছিল। সেসব আমলে নিচ্ছেন না তিনি। তবে বিচ্ছেদ নিয়ে চিন্তিত। সমসাময়িক আরও অনেক বিষয় নিয়ে অপু বিশ্বাস মুখোমুখি হয়েছেন।

কেমন আছেন?
(হাসি) ভালো থাকারই তো কথা। তাই না?

সিনেমায় ফিরছেন?
প্রস্তুতি নিচ্ছি। দুটো সিনেমা হাতে ছিল। ‘কাঙ্গাল’টা করা হবে না। তবে ‘কানাগলি’ সিনেমাটি করার ইচ্ছে আছে। এর জন্য প্রস্তুতিও নিচ্ছি। সন্তান জন্ম ও তার জন্য বাসায় রেষ্টে থাকার কারণে অনেকদিন কাজের বাইরে ছিলাম। আর এই অবসরে বেশ মুটিয়ে গিয়েছিলাম। নিয়মিত জিমে যাচ্ছি। কিছুটা কমতে শুরু করেছি। আশাকরি খুব শিগগিরই স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে পারব।

স্বামী সংসারের জন্য সিনেমায় ফেরা হচ্ছে না, এমন কথা হচ্ছিল….
এটা তো আসলে হওয়ার নয়। অপু বিশ্বাস কেন অভিনয় ছেড়ে বাসায় বসে থাকবে? এই পর্যায়ে আসতে আমার অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। হুট করে কেউ বলবে আর আমি অভিনয় ছেড়ে দিব। এটা হতে পারে না। স্বামীর অবশ্যই অধিকার আছে আমার কাজে হস্তক্ষেপ করার। তাই বলে অভিনয় ছাড়তে বলা সত্যি মেনে নেয়া যায় না। যাই হোক এ নিয়ে তো অনেক কিছু হলো। নিজেকে আরেকটু গুছিয়ে মার্চে শুটিংয়ে যেতে চাই।

এ সিনেমায় তো আপনার বিপরীতে বাপ্পি?
হ্যাঁ। বাপ্পি এ সময়কার জনপ্রিয় একজন নায়ক। খুব ট্যালেন্টও। সময় যত যাবে ও নিজেকে বিকশিত করতে পারবে বলে মনে করি। আর আমরা তো অনেকদিন ধরেই পরিচিত। একই ইন্ডাস্ট্রিতে এতদিন ধরে কাজ করছি। কাজে কোনো সমস্যা হবে না বলে আশা করি।

আইনের বেঁধে দেওয়া ৯০ দিনের মধ্যে ৪৭ দিন পেরিয়ে গেলেও বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেননি শাকিব। জানা গেছে সেই

সিদ্ধান্তেই এখনো আটকে আছেন….
আমি এ সিদ্ধান্ত মানি না। এই সিদ্ধান্তর সঙ্গে শুধু আমাদের দুজনার নয়। আমাদের ছেলের ভবিষ্যৎ নির্ভর করে। শাকিবকে পেছন থেকে কেউ এসব করাচ্ছে। সবই বের হয়ে আসবে। শাকিবও বুঝবে ভালোটা।

আগামী ১৫ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিনএসিসি) পারিবারিক আদালতে দুজনকে ঢাকা হয়েছে। আপনি কি থাকবেন?

এখনো জানিনা থাকব কিনা।

শাকিব খান শুটিংয়ের জন্য দেশের বাইরে। তার অনুপস্থিত থাকারই সম্ভাবনা বেশি…

হ্যাঁ শুনেছি।
সর্বসাকুল্যে তিনবার পারিবারিক আদালতে ডাক পড়বে। তিনবারের মধ্যে তারা যদি সংসারে ফেরার ঐক্যমতে পৌঁছান তাহলে বিষয়টির সমাধান হবে।

অন্যথায় স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিচ্ছেদ ঘটবে….

সবই সময় বলে দিবে কি হতে যাচ্ছে। আমি আমার মতো চেষ্টা করে যাচ্ছি। আব্রাহাম একটা ব্রোকেন ফ্যামিলির বাচ্চা হয়ে জয় বেড়ে উঠুক, আমি এটা চাই না। বিষয়টি সমাধানের জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাব। বিচ্ছেদকে ঘিরে কাঁদা ছোঁড়াছুঁড়ি নিয়ে শাকিবের প্রতি কোনো আক্ষেপ নেই। শাকিবকে এখনও আমি সেই প্রথম দিনের মতোই ভালোবাসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Read In English»
Close