অন্যান্য

কিশোরীর স্পর্শকাতর স্থানে কবিরাজের হাত !অতপর…

সমাজে যৌন নিপীড়নের ঘটনা দিন দিন বেড়ে চলেছে।অপরাধ আর অপরাধ মনে হচ্ছে না । ভন্ড কবিরাজের লালশার হাত হতে রক্ষা পাচ্ছে না ছোট্র শিশু।টাঙ্গাইলের মধুপুরে ছয় বছরের শিশুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে স্থানীয় এক কবিরাজকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১৮ মে) রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। আটকের নাম ফরমান আলী (৫৫)। উপজেলার চাপড়ি বাজারে নিজ বাসায় ফরমান কবিরাজি করতেন।

পুলিশ জানায়, ফরমানের বাসায় ভাড়া থাকতেন একই উপজেলার দড়িহাতিল গ্রামের আব্বাস আলীর পরিবার। কাজের সন্ধানে আব্বাস বাহিরে থাকলেও দুটি শিশু কন্যা সন্তানকে নিয়ে বাসায় থাকতেন স্ত্রী আমিনা বেগম। প্রায় সময় বড় মেয়েকে (৬) যৌন নিপীড়ন করতেন কবিরাজ।

গোসল করানোর কথা বলে পুকুরে এবং তেল দেয়ার নাম করে ঘরে নিয়ে স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিতেন কবিরাজ। কিছুদিন আগে শিশুটির গোপনাঙ্গে আঙ্গুল ঢুকিয়ে দেয় কবিরাজ। এসময় মেয়েটির চিৎকারে তার মা এগিয়ে আসলে, ঘর থেকে দৌড়ে বেড়িয়ে আসেন ফরমান। পরের দিন কবিরাজ তার স্ত্রীকে নিয়ে ঢাকায় চলে যায়।

যৌন নিপীড়নের ফলে মেয়েটির রক্তক্ষরণ হলে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক সুকুমার সরকার প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। গত বৃহস্পতিবার (১৭ মে) ফরমান এবং মেয়েটির বাবা আব্বাস আলী বাড়িতে আসলে আমিনা বেগম এ ঘটনা খুলে বলেন।

আব্বাস আলী স্থানীয় মাতাব্বরদের জানালে ওইদিন রাতেই পার্শ্ববর্তী সংগ্রামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম মিয়ার বাসায় সালিশী বৈঠক হয়। সালিশী বৈঠকে শিশু যৌন নিপীড়নের অভিযোগ শুনে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বলেন আব্দুর রহিম মিয়া।

শিশুটির মা জানান, দীর্ঘদিন ধরে ফরমান আমার অবুঝ শিশু মেয়েটিকে এভাবে নির্যাতন করে আসছে। আমি এই ঘটনার বিচার চাই।স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক সুকুমার সরকার জানান, মেয়েটির গোপনাঙ্গে আঘাতজনিত কারণে রক্তক্ষরণ হয়েছে।

কুড়ালিয়া ইউপি সদস্য আমজাদ আলী সরকার বলেন মেয়েটির মা-বাবা আমার কাছে জানালে ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটির কথা শুনে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বলেছি।সংগ্রামপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম মিয়া জানান, যখন শুনেছি ৬ বছরের শিশু যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছে তখনই পুলিশকে জানাতে বলেছি। কারণ শিশু যৌন নিপীড়নের বিচার করার অধিকার স্থানীয় চেয়ারম্যান বা মাতাব্বরদের নেই।

কুড়ালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আহাম্মদ আলী বলেন , আমাকে কেউ এ ঘটনা জানায়নি। তবে আমি শুনেছি। আমি এ ঘটনার ন্যায্য বিচার এবং উপযুক্ত সাজা চাই।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মধুপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়ে ফরমান আলীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তদন্ত করে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।অপরাধীকে অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে।

সূত্রঃmaasranga24

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *