মঙ্গলবার, ২১ অগাস্ট ২০১৮, ০৩:৫৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
ইয়াবা ব্যবসায়ী পলাতক এএসআইকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব…. ঝিনাইদহ-মাগুরা মহাসড়কের পাঁচমাইলে ট্রাক চাপায় ঢাকা কলেজের ছাত্র নিহত…. কালীগঞ্জে ভিজিএফ’র চাল ওজনে কম দেওয়ায় চেয়ারম্যানের গালে ভ্যান চালকের চড়…. ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ফেনীর ছাগলনাইয়া মুহুরীগঞ্জে ট্রাক ও মাইর্কোর সংঘর্ষে নিহত-৬ আহত-৭…. ফেনীর ছাগলনাইয়া পৌরসভাধীন উত্তর পানুয়া গ্রামে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে গুলিবিদ্ধ ১ জনসহ আন্তজেলা ডাকাত দলের ৪ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ… ফেনীতে র‍্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে দুই মাদক ব্যাবসায়ী নিহত…. বাংলাদেশ বিমানের বহরে যোগ হচ্ছে ড্রিমলাইনার বোয়িং উড়োজাহাজ.. ছাগলনাইয়া উপজেলায় পশুর হাট গুলি নিয়োমিত মনিটরিং করছে ওসি এমএম মুর্শেদ পিপিএম… কাল হজ, মিনায় ৩০ লাখ মুসল্লি… জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান আর নেই….
loading...
ধামরাইয়ের আলোচিত মামি-ভাগনের প্রেম,শেষ পর্যন্ত প্রবাসী মামার বউকে বিয়ে করলেন ভাগনে

ধামরাইয়ের আলোচিত মামি-ভাগনের প্রেম,শেষ পর্যন্ত প্রবাসী মামার বউকে বিয়ে করলেন ভাগনে

loading...

পরকীয়া প্রেম এক ভয়ংকর ব্যধিতে রূপ ধারন করেছে।প্রতিনিয়ত সারাদেশে পরকিয়ায় আসক্ত হয়ে স্বামী চলে যাচ্ছে অন্য নারীকে নিয়ে আবার স্ত্রী উধাও হচ্ছে প্রেমিকের হাত ধরে এমন ঘটনা ঘটছে ।এবার ঘটলো অবাক করার মতো ঘটনা মামির সাথে পরকিয়ায় ভাগনে।জানা জেছে

রাজধানী ঢাকার অদূরে ধামরাইয়ের কুল্লা ইউনিয়নের মামুরা কাইজারকুন্ড গ্রামে অনৈতিক কর্মে মামির সঙ্গে ধরা পড়ে হারুন। তারপর গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছে। শুধু তাই নয়, নাকেমুখে চুনকালি মেখে ছেড়া জুতার মালা পরিয়ে এলাকায় ঘোরানো হয়েছিল তাদের। এতে হারুনের জেদ চাপে মনে। শেষ পর্যন্ত মামিকেই বিয়ে করে ঘরে আনে। এখন মামি আর ভাগিনা স্বামী -স্ত্রী।
ধামরাইয়ে সিঙ্গাপুর প্রবাসী মামা বিয়ে করে বউ রেখে যান বাড়িতে। এ সুবাধে ভাগনে তার মামির সঙ্গে ভাব জমান। দুজনের মন দেয়া নেয়া থেকে শুরু হয় পরকিয়া।

সিঙ্গাপুর প্রবাসী আজাহারুল ইসলাম বছর দুই আগে কাইজারকুন্ড গ্রামের ব্যবসায়ী আব্দুল কুদ্দুসের কলেজ পড়–য়া মেয়ে শিলকে বিয়ে করে। বিয়ের কিছুদিন পর কর্মের সন্ধানে সে কলেজ পড়–য়া স্ত্রীকে রেখে সিঙ্গাপুর চলে যায়।

এসময় ধামরাইয়ের সোমভাগ ইউনিয়নের দেপাসাই কারাবিল গ্রামের কলেজ পড়–য়া ভাগিনা হারুন অর রশিদ (২০) প্রায়ই যাতায়াত করত ওই বাড়িতে। দুই কলেজ পড়–য়া মামী ভাগিনার সম্পর্ক গড়ে উঠে। কৌশলে ভাগিনা মামার বাড়িতে থেকেই মামীর সঙ্গে সাভার কলেজে লেখাপড়া শুরু করে।

শুধু তাই নয় একই ঘরের ভেতরে মামী, বারান্দার রুমে ভাগিনা থাকা শুরু করে। একদিন স্থানীয়রা আপত্তিকর অবস্থায় তাদের ধরে ফেলে এবং দুজনকেই মারধর তরে নাকে খত ও জুতার মালা পড়িয়ে দেয়। খবর পেয়ে ধামরাই থানা পুলিশ মামী ভাগিনাকে থানায় নিয়ে আসে। পরে তাদের দুজনের সম্মতিতে গতকাল বুধবার আদালতে নিয়ে তাদের বিয়ে দিয়ে দেয়া হয় ।

স্থানীয় লোকজন অভিযোগ করে বলেন লম্পট ভাগিনা হারুনের জন্য পর পর তিনটি সংসার ভেঙ্গে গেল।যা আসলেই দু:খজনক

সংবাদটি ফেজবুকে সেয়ার করুন
loading...

অামাদের সংবাদ সংক্রান্ত তর্থ্য

সকল প্রকাশিত/সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট ইত্যদি অনলাইনের নানা সূত্র থেকে সংগৃহীত। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ীনয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের এবং প্রকাশিত সূত্রের। অামাদের প্রকাশিত সংবাদে কোন অভিযোগ থাকলে অামাদের জানাতে পারেন।


© All rights reserved © ২০১৭-২০১৮ দৈনিক সময়. কম
Design & Developed BY দৈনিক সময়