অপারেটর সংবাদজেলা সংবাদ

ছাগলনাইয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধাদের হয়রানির অবসান ঘটালেন ফেনী জেলা প্রশাসক…

সৈয়দ কামাল,সময় প্রতিনিধি ফেনীঃএরা ছাগলনাইয়া উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা,উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাহিদা ফাতেমা চৌধুরীর দরবারে এসেছেন কাঙ্খিত ৩১০০(তিন হাজার একশত)টাকার মুক্তিযোদ্ধা চিকিৎসা ভাতা গ্রহণ করতে।আমার পিতার নামটি ও রয়েছে এই তালিকায়।আমার পিতা মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আবদুর রহিম চুট্টু মিয়া।যিনি মুমুর্ষ অবস্থায় দীর্ঘ প্রায় ১ বছর যাবৎত ঘরবন্ধি হয়ে আছেন।আমার বাবা পরপর দুই বার ছাগলনাইয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নির্বাচিত ডেপুটি কমান্ডার।বাবা দশটি মাস ঘর থেকে ভেরহতে পারেন নি।মৃত্যু অবদি আর ভেরহতে পারবেন বলে মনে হয় না।যার কারণে উনার পক্ষে মুক্তিযোদ্ধা চিকিৎসা ভাতার চেক টা গ্রহণ করতে আমিও তার দরবারে হাজিরা দিতে গিয়েছিলাম দুপুর ১ টা ৩০ মিনিটে।গিয়ে দেখি বাবার বয়সী অনেকে এই কয়টা টাকার জন্য ঠাই দাঁড়ীয়ে আছে সেই সকাল ১০ টা থেকে।জিজ্ঞাস করলাম কি?কাকারা চেক পান নি।রোজারেখে বয়সী মানুষ গুলির মুখ শুকিয়ে আছে।বল্ল বাবা ইউনো নাকি বর্ডার হাটে মিটিংয়ে আছে,উনি না আসলে চেক দিবে না।এই চিকিৎসা ভাতার জন্য প্রায় ৬ মাস পূর্বে কাগজ পত্র জমা দিয়েছিলো মুক্তিযোদ্ধারা।তার পরথেকে কবে পাবে কাঙ্খিত এই ভাতা তার খোঁজ খবর জানার জন্য এক একজন মুক্তিযোদ্ধাকে কমপক্ষে ১০ বারের উপরে যেতে হয়েছিলো তার দরবারে।যদিও ভাতার এই টাকা গুলি সরকার প্রায় ৪ মাসপূর্বে পাঠিয়ে দিয়েছিলো।মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ইউনো সাহেবের হাতে সময় থাকেনা,যার কারনে ভাতার এই টাকা গুলি পেতে এত দেরী হয়েছে।বহুদিন দরনা ধরার পর আজ কাঙ্খিত সেই চিকিৎসা ভাতার চেকের জন্য গিয়ে সেই সকাল থেকে অপেক্ষার প্রহর গুনছিলো কখন আসবে ইউনো সাবেবা।আমি বিষয় টি জানার জন্য অফিস সহকারীকে জিজ্ঞাস করলাম ভাইজান চেকে কি উনি(ইউনো) স্বাক্ষর করেন নি।সে বল্ল স্যারের স্বাক্ষর হয়েগেছে।তাহলে এই অসুস্থ বুড়ো মানুষ গুলিকে চেক টা দিচ্ছেন না কেন?স্যার বলেছে উনি এসে দিবেন।কথাটা শুনে মনের মধ্যে খুব দুঃখ পেলাম এরা নাকি মুক্তিযোদ্ধা,এরা নাকি দেশ স্বাধীন করেছে অথচ সিকিৎসা ভাতার এই অল্প কয়টা টাকা পাওয়ার আশায় কত হয়রানির শিকার হয়েছে এই ইউনো সাহেবার দরবারে এসে।শেষ অবধী ও হয়রানি উনি না এলে হবে না।মুক্তিযোদ্ধাদের এই অবস্থা দেখে আমি জেলা প্রশাসক কে ফোন করে বিষয় টি জানানোর সাথে সাথেই অফিস সহকারী মুক্তিযোদ্ধাদের ডাকছেন,কই আপনারা আপনাদের চেক নিয়ে যান।শেষ অবধী ফেনী জেলা প্রশাসক মনোজ কুমার রায় ছাগলনাইয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধাদে কে ইউনো সাহেবার হয়রানির হাত থেকে উদ্ধহার করলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close