রবিবার, ২২ Jul ২০১৮, ০১:৩২ পূর্বাহ্ন

রূপগঞ্জে সড়ক যেন মরণফাঁদ….

রূপগঞ্জে সড়ক যেন মরণফাঁদ….

হোম আজকের পত্রিকাপ্রিয় দেশ রূপগঞ্জে সড়ক যেন মরণফাঁদরূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধিঃনারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের গোলাকান্দাইল নতুন বাজার থেকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের হারভেস্ট রিচ গার্মেন্ট পর্যন্ত এক কিলোমিটার সড়কে দুই থেকে তিন ফুট গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে এই সড়কে চলাচলকারী ছয় থেকে সাতটি কারখানার শ্রমিকসহ কমপক্ষে ১৫ হাজার মানুষ চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। গতকালের চিত্র।

সর্বশেষ এক বছর আগে সড়কটি সংস্কার করা হয়। কিন্তু এ বছরের বৃষ্টিতে সড়কে পানি জমেছে।

এ অবস্থায় বিভিন্ন স্থানে দুই থেকে তিন ফুট গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন সড়কটি দিয়ে চলাচলকারী গাড়ির চালক-যাত্রী ও পথচারীরা। কখনো কখনো গর্তে গাড়ি আটকে ঘটছে দুর্ঘটনাও। এ হাল নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের গোলাকান্দাইল নতুন বাজার থেকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের হারভেস্ট রিচ গার্মেন্ট পর্যন্ত এক কিলোমিটার সড়কের। অথচ প্রতিদিন কমপক্ষে ১৫ হাজার মানুষ এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করে।
গার্মেন্টকর্মী রুনা আক্তার ক্ষোভের সুরে বলেন, ‘এক কাপড়ে কারখানায় যেতে পারি না। বাসা থেকে বের হলে অতিরিক্ত কাপড় সঙ্গে নিয়ে বের হতে হয়। এক কিলোমিটার সড়ক যেতে সময় লাগে আধাঘণ্টা, খরচ হয় ২০-৪০ টাকা। এলাকার মেম্বার, চেয়ারম্যান, এমনকি এমপিও (সংসদ সদস্য) এ রাস্তাটি দেখেও দেখেন না।

এখানকার জনপ্রতিনিধিদের ভোট দরকার নেই। তাই এই এক কিলোমিটার সড়ক মেরামত করেন না। ’ ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাচালক কার্তিক বলেন, ‘ভাড়ায় গাড়ি চালাই। প্রতিদিন ৫০০ টাকা জমা। আগে গাড়ি বেশি ছিল, ভাড়া কম ছিল। সড়কটির বেহালের কারণে অনেকেই গাড়ি চালান না। অনেক মালিকও গাড়ি ভাড়া দেন না। ’
রিকশাচালক সেলিম মিয়া বলেন, ‘সড়কটি দ্রুত মেরামত করা না হলে আমাদের মতো খেটে খাওয়া মানুষরা যাব কোথায়?’

সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক মাহাবুুুুব বলেন, ‘এ সড়ক দিয়ে সিএনজি চালাতে পারি না। কিস্তির (সিএনজি কেনার) টাকা দেব কিভাবে?’

পথচারী আরকান হোসেন বলেন, ‘আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলাম। আসার সময় রিকশা থেকে পড়ে কাপড় নষ্ট হয়ে গেছে। ’

কাঁচপুর সিনহা কলেজের ছাত্রী সুমাইয়া আফরোজ বলেন, ‘কলেজ ড্রেস হাতে নিয়ে কলেজে যেতে হয়। সড়কটির বিভিন্ন স্থানে দুই থেকে তিন ফুট গর্ত আছে। ভয় লাগে কখন রিকশা উল্টে হাত-পা ভেঙে যায়। ’

ভুলতা স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রী রানী সরকারের দাবি, ‘আমাদের সড়কটি যেন দ্রুত মেরামত করা হয়। ’ গোলাকান্দাইল ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য নাছির উদ্দিন বলেন, ‘কয়েক মাসের মধ্যে সড়কটি মেরামত হবে বলে জানতে পেরেছি। ’

একই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মঞ্জুর হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘পিচে বৃষ্টির পানি জমাট বাঁধলেই নষ্ট হয়ে যায়। তবে ভারী যান চলাচল বন্ধসহ পানি সরানোর ব্যবস্থা করে সড়কটি আবার মেরামতের ব্যবস্থা করা হবে। ’

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী এহসানুল হক বলেন, ‘বৃষ্টির কারণে উপজেলাজুড়ে অনেক সড়ক নষ্ট হয়ে গেছে। কয়েক মাসের মধ্যে গোলাকান্দাইল নতুন বাজার থেকে গার্মেন্ট পর্যন্ত সড়কটির কাজ ধরা হবে। ’

সূত্র-কালেরকন্ঠ

সংবাদটি ফেজবুকে সেয়ার করুন

অামাদের সংবাদ সংক্রান্ত তর্থ্য

সকল প্রকাশিত/সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট ইত্যদি অনলাইনের নানা সূত্র থেকে সংগৃহীত। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ীনয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের এবং প্রকাশিত সূত্রের। অামাদের প্রকাশিত সংবাদে কোন অভিযোগ থাকলে অামাদের জানাতে পারেন।


© All rights reserved © ২০১৭-২০১৮ দৈনিক সময়. কম
Design & Developed BY দৈনিক সময়