অন্যান্য

গরমে পানি কমে জার্মানিতে বেরিয়ে আসছে অস্ত্র

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় এবং যুদ্ধের পর নদী বা জলাশয়ে অস্ত্র, বোমা ও অন্যান্য উপকরণ ফেলে দেয়া হয়েছিল। এতদিন পর এসব সামরিক অস্ত্র-শস্ত্র বের হচ্ছে। কারণ, জার্মানি জুড়ে তাপমাত্রা বৃদ্ধিতে জলাশয়ের পানি কমে গেছে। তবে এসব অস্ত্রের দেখা পেলে তাতে স্পর্শ না করতে সতর্ক করেছে দেশটির পুুলিশ।
পুলিশের দেয়া তথ্যানুযায়ী, জার্মানির পূর্বাঞ্চলের সাক্সনি আনহাল্ট আর সাক্সনি রাজ্যে এল্বে নদীর বিভিন্ন জায়গায় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের বিপুল পরিমাণ বোমা ও অস্ত্র পাওয়া গেছে। এগুলোর মধ্যে আছে রয়েছে- ২২টি গ্রেনেড, মাইন ও অন্যান্য বিস্ফোরক দ্রব্য। পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘এটা পরিষ্কার যে পানির স্তর নীচে নেমে যাওয়ায় এগুলো পাওয়া যাচ্ছে।’

জার্মানিতে এ বছর জুলাইকে বলা হচ্ছে উষ্ণতম মাস। ৩১ জুলাই সাক্সনি আনহাল্টে তাপমাত্রা ছিল সর্বোচ্চ ৩৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সপ্তাহের শুরুতে সাক্সনি আনহাল্টের মাগডেবুর্গে পানির উচ্চতা রেকর্ড পরিমান ৫১ সেন্টিমিটার কমে গেছে। যেখানে সর্বশেষ ১৯৩৪ সালে পানি কমেছিল ৪৮ সেন্টিমিটার।

দেশটির পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এ রকম কোনো অস্ত্র বা সরঞ্জাম দেখতে পেলে প্রথমে তাদেরকে যেন খবর দেয়া হয়। এরপর অস্ত্র নিষ্ক্রিয়করণ বিশেষজ্ঞরা পরীক্ষা করে সেগুলোকে নিষ্ক্রিয় করেন।

এছাড়া যেগুলো নিষ্ক্রিয় করা যায় না, সেগুলোকে খোলা জায়গায় নিয়ে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। গত মাসে এলবে নদীতে পাওয়া দু’টি অ্যান্টি ট্যাংক মাইনের বিস্ফোরণ ঘটিয়েছেন অস্ত্র নিষ্ক্রিয়করণ বিশেষজ্ঞরা। সূত্র : ডয়চে ভেলে

সূত্র:hazarikapratidin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close