1. Mijankhan298@gmail.com : Mijankhan :
  2. Bijoyerbangla@gmail.com : সময় সংবাদ : সময় সংবাদ
অসাধারণ খেলে আমিরাতকে হোয়াইটওয়াশ করল বাংলাদেশ - সময়য়ের সেরা খবর!
সদ্যপ্রাপ্ত:
জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে সুপার টুয়েলভের জায়গা টিকিয়ে রাখল দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা ব্যর্থতার মাঝে ঘুরপাক খাওয়া টাইগারদের নিয়ে অবিশ্বাস্য বার্তা মাশরাফির মাশরাফিকে আইকন করে আমিরসহ এই ৩ বিদেশি ভয়ংকর ক্রিকেটারকে দলে ভেড়ালো সিলেট দেশের মাটিতে ব্যাট হাতে যত রান করলেন আশরাফুল শ্রীলংকার বিপক্ষে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে আরব আমিরাত, দেখুন দুই দলের শক্তিশালী একাদশ বিশ্বকাপের মূল পর্বে ‘একটা জয়ই বদলে দেবে সবকিছু’ বাংলাদেশে কখনোই ১৩৫ স্ট্রাইকরেটের ব্যাটার ছিল না: মোসাদ্দেক ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারাতেই অবিশ্বাস্যভাবে যা বললেন স্কটল্যান্ড অধিনায়ক রিচি বেরিংটন প্রস্তুতি ম্যাচে বিশাল ব্যবধানে হারল বাংলাদেশ হাসান মাহমুদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে দিশেহারা আফগানিস্তান

অসাধারণ খেলে আমিরাতকে হোয়াইটওয়াশ করল বাংলাদেশ

  • প্রাবলিশ করা হয়েছে : বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ২১৭ জন পড়েছে

সংযুক্ত আরব আমিরাত বাংলাদেশকে হারের শঙ্কাতেই ফেলে দিয়েছিল প্রথম ম্যাচে। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে এসে তাদের আর তেমন কিছু করতে দেননি নুরুল হাসানরা। ১৬৯ রানের পুঁজি দারুণ

দক্ষতায় সামলেছেন বোলাররা, তাতে ৩২ রানের সহজ জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। যার ফলে ২-০ ব্যবধানে স্বাগতিকদের হোয়াইটওয়াশও করে ফেলেছে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। টসে হেরে

ব্যাট করতে নেমে পাওয়ারপ্লেতে সাব্বির রহমানকে হারায় বাংলাদেশ। তবে এরপরই সামলে নেয় ওপেনার মেহেদি হাসান মিরাজ আর লিটন দাসের ব্যাটিংয়ে। পাওয়ারপ্লে থেকে

আসে ৪৮ রান। পাওয়ারপ্লে শেষের কিছু পরেই লিটন ফেরেন ২০ বলে ২৫ রান করে। এরপর আফিফ শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক মেজাজে ছিলেন। দারুণ দুটো বাউন্ডারিতে ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন আগের ম্যাচের ছন্দটা এই ম্যাচেও

টেনে আনার। তবে ১০ বলে ১৮ রান করে তিনিও ফেরেন একটু পর। ১৫তম ওভারে বাজে আম্পায়ারিংয়ের শিকার হয়ে ওপেনার মিরাজ ফেরেন ফিফটি থেকে ৪ রান দূরে থেকে। তার বিদায়ের ফলে আর রানের চাকার গতি বাড়ানো সম্ভব হয়নি। রান রেটটা

ঘুরেছে ৮ এর আশেপাশেই। ১৭তম ওভারের শেষে মোসাদ্দেকও যখন ফিরলেন ২২ বলে ২৭ রানের ইনিংস খেলে, তখন দলের রান ছিল কেবল ১৩৭। সেখান থেকে বাংলাদেশের রানটা ১৬০ পেরিয়েছে ইয়াসির আলী ও অধিনায়ক

নুরুল হাসানের কল্যাণে। দুজন মিলে শেষ তিন ওভারে তোলেন ৩২ রান। তাতেই ১৬৯ রানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ। বোলিংয়ে নেমে বাংলাদেশ সফলতা পায় ইনিংসের তৃতীয় ওভারে। চিরাগ

সুরিকে ফেরান নাসুম আহমেদ। পাওয়ারপ্লের শেষ ওভারে মুহাম্মাদ ওয়াসিমকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে ফেরান তাসকিন আহমেদ। পরের ওভারে আরিয়ান লাকরা ফেরেন

মোসাদ্দেক হোসেনের শিকার হয়ে। ঠিক পরের বলেই যখন বৃত্ত অরবিন্দ ফিরলেন, ২৯ রানে ৪ উইকেট খোয়ানো সংযুক্ত আরব আমিরাত অল্পেতেই গুটিয়ে যাবে, মনে হচ্ছিল তেমনটাই। সেখান থেকে আমিরাত

যে আর মাত্র এক উইকেট খুইয়ে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষ করল, তার কৃতিত্বের পুরোটা যাবে অধিনায়ক রিজওয়ান আর বাসিল হামিদের ভাগে। রিজওয়ান ফিফটি করে অপরাজিত থাকেন, বাসিল ৪২ রানের ইনিংস খেলে এবাদত

হোসেনের শিকার হয়ে ফেরেন ১৯তম ওভারে। তাতে বাংলাদেশের অবশ্য খুব বেশি ক্ষতি হয়নি, জয়ের ব্যবধানটা কমেছে এই যা! শেষমেশ ৩২ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ। নিশ্চিত হয়ে যায় ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জয়টাও।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন🙏

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন 👇
© All rights reserved © 2022
Site Customized By NewsTech.Com