1. Mijankhan298@gmail.com : Mijankhan :
  2. Bijoyerbangla@gmail.com : সময় সংবাদ : সময় সংবাদ
৪০৮ রানের রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতল ইংল্যান্ড - সময়য়ের সেরা খবর!
সদ্যপ্রাপ্ত:
জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে সুপার টুয়েলভের জায়গা টিকিয়ে রাখল দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা ব্যর্থতার মাঝে ঘুরপাক খাওয়া টাইগারদের নিয়ে অবিশ্বাস্য বার্তা মাশরাফির মাশরাফিকে আইকন করে আমিরসহ এই ৩ বিদেশি ভয়ংকর ক্রিকেটারকে দলে ভেড়ালো সিলেট দেশের মাটিতে ব্যাট হাতে যত রান করলেন আশরাফুল শ্রীলংকার বিপক্ষে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে আরব আমিরাত, দেখুন দুই দলের শক্তিশালী একাদশ বিশ্বকাপের মূল পর্বে ‘একটা জয়ই বদলে দেবে সবকিছু’ বাংলাদেশে কখনোই ১৩৫ স্ট্রাইকরেটের ব্যাটার ছিল না: মোসাদ্দেক ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারাতেই অবিশ্বাস্যভাবে যা বললেন স্কটল্যান্ড অধিনায়ক রিচি বেরিংটন প্রস্তুতি ম্যাচে বিশাল ব্যবধানে হারল বাংলাদেশ হাসান মাহমুদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে দিশেহারা আফগানিস্তান

৪০৮ রানের রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে জিতল ইংল্যান্ড

  • প্রাবলিশ করা হয়েছে : রবিবার, ৯ অক্টোবর, ২০২২
  • ২৫৪ জন পড়েছে

টি-টোয়েন্টিতে শক্তিধর দুই দল ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। এই দুই দলের ম্যাচে রোমাঞ্চ থাকবে না সেটা কি করে হয়। বারবার রং বদলানো ম্যাচে শেষ হাসি হাসল ইংল্যান্ড। ইংল্যান্ডের ব্যাটিংয়ের সময় মনে হয়েছিল তাদের সংগ্রহ হবে আড়াইশর

কাছাকাছি। কিন্তু অজি বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে শেষ পর্যন্ত ২০৯ রানে থামে ইংলিশরা। আবার অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিংয়ের সময় মনে হয়েছিল অনায়েসে ম্যাচটি জিতবে ফিঞ্চের দল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হার নিয়েই মাঠ ছাড়ল স্বাগতিকরা।

পার্থে রোমাঞ্চকর এই লড়াইয়ে অস্ট্রেলিয়াকে ৮ রানে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। এতে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে সফরকারীরা।

দুই দল মিলিয়ে এই টি-টোয়েন্টি ম্যাচে করে ৪০৮ রান। শেষ ওভারে অস্ট্রেলিয়ার দরকার ছিল ১৬ রান। হাতে ৩ উইকেট। কঠিন হলেও রানবন্যার ম্যাচে অসম্ভব ছিল না। ক্রিজে আবার ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার পরীক্ষিত হার্ডহিটার ম্যাথু ওয়েড।

স্যাম কুরানের করা ওই ওভারে প্রথম বলেই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সমর্থকদের আশাবাদী করে তোলেন ওয়েড। কিন্তু কুরান মাথা ঠাণ্ডা রেখে এরপর বল করে গেছেন। দ্বিতীয় বলে ডট, তৃতীয় বলে ওয়েডকে তুলে নেন কুরান।

এক বল পর ইংলিশ বাঁহাতি পেসার বোল্ড করেন নাথান এলিসকে। সবমিলিয়ে দুর্দান্ত এক ওভারে খরচ করেন ৭ রান, তুলে নেন দুই উইকেট। ৯ উইকেটে ২০০ রানে থামে অস্ট্রেলিয়া।

অস্ট্রেলিয়ার রান তাড়ার ভিতটা মূলত গড়ে দিয়েছিলেন ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। ৪৪ বলে ৮ বাউন্ডারি আর ২ ছক্কায় ৭৩ রান আসে তার ব্যাট থেকে। এছাড়া মিচেল মার্শ ২৬ বলে ৩৬, মার্কাস স্টয়নিস ১৫ বলে ৩৫ আর শেষদিকে ম্যাথু ওয়েড ১৫ বলে করেন ২১ রান।

এর আগে দুই ওপেনার জস বাটলার আর অ্যালেক্স হেলসের ঝোড়ো ব্যাটে চড়ে ৬ উইকেটে ২০৮ রানের বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করিয়েছিল ইংল্যান্ড।

টস জিতে ইংল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠানোই কাল হয় অস্ট্রেলিয়ার। বাটলার আর হেলস ৬৮ বল খেলেই তুলে দেন ১৩২ রান। বিধ্বংসী এই ওপেনিং জুটিটি অবশেষে ভাঙে বাটলার আউট হলে। ইংলিশ এই উইকেটরক্ষক ব্যাটার ৩২ বল খেলে ৮ চার আর ৪ ছক্কায় করেন ৬৮ রান।

আরেক ওপেনার অ্যালেক্স হেলস ৫১ বলে খেলেন ৮৪ রানের ইনিংস। তার ইনিংসটি ১২টি চার ও ৩ ছক্কায় সাজানো। অজি বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল ছিলেন নাথান এলিস। রানবন্যার ইনিংসে ৪ ওভারে মাত্র ২০ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নেন এই পেসার।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন🙏

এই বিভাগের আরো খবর পড়ুন 👇
© All rights reserved © 2022
Site Customized By NewsTech.Com